kalerkantho


সাইফের জয়ে জামালের প্রাপ্তি

৮ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



সাইফের জয়ে জামালের প্রাপ্তি

ক্রীড়া প্রতিবেদক : আবাহনীকে হারাতে পারলেই লিগ শিরোপার কাছাকাছি পৌঁছে যেত শেখ জামাল। সেটি তারা পারেনি। অলিখিত সেই ফাইনাল জিতে আবাহনীই জিতেছে শিরোপা। শেষ ম্যাচে ফরাশগঞ্জকে হারিয়ে জামালের তাই অন্তত রানার্স-আপ হওয়াটা নিশ্চিত করার কথা। কিন্তু তারও আর দরকার পড়ছে না। শিরোপা রেস থেকে ছিটকে পড়ে চট্টগ্রাম আবাহনী এতটাই হতোদ্যম হয়েছে যে কাল সাইফ স্পোর্টিংয়ের কাছে হেরেছে তারা ৩-০ গোলে। তাতে জামালের রানার্স-আপ হওয়াটাও নিশ্চিত হয়ে গেছে।

২১ ম্যাচে চট্টগ্রাম আবাহনীর পয়েন্ট এখনো ৪৩। জামাল দ্বিতীয় স্থানে আছে ৪৭ পয়েন্ট নিয়ে। শেষ ম্যাচে তারা হারলেও চট্টগ্রাম আবাহনীর আর সুযোগ নেই তাদের টপকানোর। শেখ জামালের কাছে হেরেই তো শিরোপা রেস থেকে ছিটকে গিয়েছিল তারা। ওই ম্যাচ শেষে কোচ সাইফুল বারীও বরখাস্ত হন। কাল চট্টগ্রাম আবাহনীর ডাগআউটে তাই জুলফিকার মাহমুদ মিন্টু। কিন্তু খেলোয়াড়দের সামান্যই অনুপ্রাণিত করতে পেরেছেন তিনি। ম্যাচের ২৬ মিনিটে চার্লি শেরিংহামের গোলে প্রথমে পিছিয়ে পড়ে তারা। বিরতির আগে শেরিংহামই করেছেন ২-০। দুটি গোলেই ইব্রাহিমের ফ্রি কিকে মাথা ছুঁইয়ে দিয়েছেন তিনি। জোড়া অ্যাসিস্ট করা ইব্রাহিম এরপর নিজেও গোলের খাতা খুলেছেন। বক্সের ভেতর থেকে প্লেসিং শটে নিজের সাবেক দলের জালে বল জড়িয়ে দিয়েছেন তরুণ এই উইঙ্গার। লিগে সবচেয়ে বড় ব্যবধানে হারও এটি চট্টগ্রাম আবাহনীর।

সাইফ অবশ্য এই জয়েও চতুর্থ স্থানে। তবে চট্টগ্রাম আবাহনী শেষ ম্যাচে হারলে সেই রাউন্ডে জয় তুলে নিয়ে চট্টগ্রামের দলটিকে নামিয়ে তারাই উঠে আসতে পারে তিনে। গতকালের পারফরম্যান্সের পর সেটি অসম্ভব মনে হওয়ার কথা নয়। কারণ চট্টগ্রাম আবাহনী শেষ ম্যাচ খেলবে চ্যাম্পিয়ন ঢাকা আবাহনীর বিপক্ষে, সাইফের প্রতিপক্ষ রহমতগঞ্জ।

কাল অন্য ম্যাচে মোহামেডান ৩-২ গোলে হারিয়েছে মুক্তিযোদ্ধাকে। প্রথমার্ধে ২-০ গোলে এগিয়ে গিয়েও লিড ধরে রাখতে পারেনি মোহামেডান, মাগালান আওয়ালার জোড়া গোলে সমতা ফিরিয়েছিল মুক্তিযোদ্ধা। এই স্কোরলাইন টিকে গেলে এই ম্যাচেই অবনমন এড়াতে পারত তারা। কিন্তু সেটি তারা পারেনি। অতিরিক্ত সময়ের গোলে মোহামেডানকে জয় এনে দিয়েছেন অগাস্টিন কিংসলে চিগোজি। ম্যাচে তাঁর জোড়া গোল। অগাস্টিন ওয়ালসন প্রথম এগিয়ে দেওয়ার পর তিনিই ২-০ করেছিলেন। এই জয়ে মোহামেডান ৩২ পয়েন্ট নিয়ে পঞ্চম স্থানেই আছে। মুক্তিযোদ্ধার ২১ খেলায় ১৭। তাতে কাগজে-কলমে হলেও অবনমন ঝুঁকি রয়ে গেল তাদের। কারণ তলানিতে ফরাশগঞ্জ ও রহমতগঞ্জ দুই দলেরই সমান ১৪ পয়েন্ট। শেষ রাউন্ডেই তাই নিশ্চিত হবে এবার নেমে যাচ্ছে কারা।


মন্তব্য