kalerkantho


উজ্জ্বল তৌহিদ আর আফিফে শেষ আটে এক পা

১৬ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



উজ্জ্বল তৌহিদ আর আফিফে শেষ আটে এক পা

ক্রীড়া প্রতিবেদক : তৌহিদ হোসেন হৃদয় যেখানে ব্যাটিংয়ে উজ্জ্বল, সেখানে আফিফ হোসেন ব্যাটে-বলে দুটিতেই। প্রথমজন করলেন সেঞ্চুরি। পরেরজন ব্যাটিংয়ে ফিফটির পর অফ স্পিনেও নিলেন পাঁচ উইকেট। দুজনের অবদানে আগে ব্যাট করা বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল যুব বিশ্বকাপে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে বড় স্কোর তো গড়লই, কানাডার অনূর্ধ্ব-১৯ দলকে গতকাল লক্ষ্যের অনেক আগে থামিয়ে তুলে নিল ৬৬ রানের জয়ও। নিউজিল্যান্ডের লিংকনে পাওয়া এই জয়ে যুব বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালেও এক পা দিয়ে রাখল নামিবিয়াকে হারিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করা সাইফ হাসানের দল। ১৮ জানুয়ারি ‘সি’ গ্রুপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তাদের শেষ ম্যাচটি হয়ে উঠতে পারে গ্রুপ সেরার মর্যাদা নিয়ে শেষ আটে যাওয়ার লড়াইও।

দাপটে ম্যাচ জিতলেও শুরুটা অবশ্য ভালো ছিল না সাইফদের। শুরুতেই হারায় ওপেনার পিনাক ঘোষের (০) উইকেট। অধিনায়ক সাইফও (১৭) ফিরে যান দলকে ২৯ রানে রেখে। সেখান থেকে অন্য ওপেনার মোহাম্মদ নাঈমকে সঙ্গে নিয়ে তৃতীয় উইকেটে ৬২ রানের পার্টনারশিপে বিপর্যয় সামলে নেন তৌহিদ হৃদয়। নাঈমের (৪৭) বিদায়ে এই জুটি ভাঙার পরই আফিফকে নিয়ে হৃদয় গড়েন ম্যাচের সবচেয়ে বড় পার্টনারশিপ। চতুর্থ উইকেটে তাঁরা দুজনে মিলে যোগ করেন ১১১ রান। যেটি বাংলাদেশি যুবাদের স্কোরবোর্ডে ৮ উইকেটে ২৬৪ রান জমা করার ভিত গড়ে দেয়।

পাঁচ বাউন্ডারি ও এক ছক্কায় ফিফটি করার পরপরই আফিফ আউট হয়ে গেলেও ইনিংসের শেষ বল পর্যন্ত ছিলেন সেঞ্চুরিয়ান তৌহিদ হৃদয়। শেষ বলে আউট হওয়া এ ব্যাটসম্যান ১২৬ বলে ১২২ রানের ইনিংসটি সাজিয়েছেন ৯ বাউন্ডারি ও এক ছক্কা দিয়ে। ব্যাটিংয়ে ফিফটি করা আফিফ পরে বোলিংয়েও তুলেছেন টপাটপ উইকেট। ৪৩ রান খরচায় নিয়েছেন পাঁচ উইকেট। ব্যাটে-বলে অলরাউন্ড নৈপুণ্যের জন্য পেয়েছেন ম্যাচসেরার পুরস্কারও।    

সংক্ষিপ্ত স্কোর

বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল : ৫০ ওভারে ২৬৪/৮ (তৌহিদ হৃদয় ১২২, আফিফ ৫০, নাঈম ৪৭, আমিনুল ১৯, সাইফ ১৭; ফয়সাল ৫/৪৮)।

কানাডা অনূর্ধ্ব-১৯ দল : ৪৯.৩ ওভারে ১৯৮ (আরসলান ৬৩, প্রণব ৩৪, নারিস ২৬*; আফিফ ৫/৪৩, হাসান ২/২৩, সাইফ ১/৭, অনিক ১/৩৯, রবিউল ১/৪৭)।

ফল : বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল ৬৬ রানে জয়ী।

ম্যাচসেরা : আফিফ হোসেন (বাংলাদেশ)।


মন্তব্য