kalerkantho


ছুটছেন ফেদেরার, বিদায় শারাপোভা

২১ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



ছুটছেন ফেদেরার, বিদায় শারাপোভা

প্রবলভাবে ফেরা হলো না মারিয়া শারাপোভার। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে থামলেন তৃতীয় রাউন্ডেই। ডোপ কেলেঙ্কারিতে ১৫ মাসের সাজা কাটিয়ে ফেরা রুশ সুন্দরীকে গতকাল ৬-১, ৬-৩ গেমে হারিয়েছেন অ্যাঞ্জেলিক কেরবার। মেয়েদের শীর্ষ বাছাই সিমোনা হালেপ মহাকাব্যিক ম্যাচে ৪-৬, ৬-৪, ১৫-১৩ পয়েন্টে হারিয়েছেন লরা ডেভিসকে। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে সবচেয়ে বেশি, ৪৮ গেমের রেকর্ড এটাই।

চোটের জন্য ছয় মাস বাইরে থাকা নোভাক জোকোভিচ গতকাল আবারও পড়েছিলেন ইনজুরিতে। অ্যালবার্ট রামোস ভিনোলাসের বিপক্ষে দ্বিতীয় সেটে শরণাপন্ন হয়েছিলেন চিকিৎসকের। শঙ্কা কাটিয়ে শেষ পর্যন্ত ৬-২, ৬-৩, ৬-৩ গেমে জিতেছেন সাবেক এই নাম্বার ওয়ান।

জয়রথ ছুটছে রজার ফেদেরারেরও। শিরোপা ধরে রাখার মিশনে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন এই সুইস তারকার বিপক্ষে তেমন কোনো প্রতিরোধই গড়তে পারেননি রিচার্ড গ্যাসকুয়েট। ২০১১ সালের পর থেকে ফেদেরারের বিপক্ষে কোনো গেম জিততে পারেননি ফ্রান্সের এ খেলোয়াড়। গৌরবের রেকর্ডটা অক্ষুণ্ন রেখে ১৯ বারের গ্র্যান্ড স্লামজয়ী ‘ফেডেক্স’ এবার কোর্ট ছাড়েন ৬-২, ৭-৫, ৬-৪ গেমের সহজ জয়ে। তবে শিরোপার স্বপ্ন শেষ আর্জেন্টাইন তারকা হুয়ান মার্তিন দেল পোত্রো ও চতুর্থ বাছাই আলেকজান্দার জিভেরেভের। দেল পোত্রোকে ৬-৩, ৬-৩, ৬-২ গেমে হারিয়েছেন চেক প্রজাতন্ত্রের টমাস বার্দিচ। আর জার্মানির উদীয়মান তারকা জিভেরেভ ৭-৫, ৬-৭, ৬-২, ৩-৬, ০-৬ গেমে হেরেছেন হু চুংয়ের কাছে।

প্রথম দুই রাউন্ডে দুর্দান্ত খেলা শারাপোভা পাত্তাই পাননি গতকাল। সাবেক নাম্বার ওয়ান কেরবার মাত্র ৬৪ মিনিটে বিধ্বস্ত করেছেন রুশ গ্ল্যামার গার্লকে। শারাপোভার সার্ভই ভেঙেছেন পাঁচবার। জোহানা কন্টার সাবেক কোচ উইম ফিসেতেকে নিয়োগ দিয়ে আরো আক্রমণাত্মক হওয়া কেরবার অবশ্য পা রাখছেন মাটিতেই, ‘আমি জানতাম শারাপোভা শেষ পর্যন্ত লড়াই করে যায়। তাই প্রথম সেটের পয়েন্টের দিকে না তাকিয়ে নিজের খেলাটা খেলছিলাম। আমি চাই পুরো টুর্নামেন্টে এভাবে খেলতে। শারাপোভার বিদায়ে মেলবোর্ন পার্কে টিকে রইলেন শুধু সাবেক দুই চ্যাম্পিয়ন।

বর্তমান নাম্বার ওয়ান সিমোনা হালেপ গতকাল হারতেই বসেছিলেন। লরা ডেভিসের বিপক্ষে জিততে হয়েছে ৩ ঘণ্টা ৪৫ মিনিট লড়াই করে। বাঁচিয়েছেন ম্যাচ পয়েন্টও। প্রথম দুই সেটে সমতার পর শেষ সেটটা শেষই হতে চাইছিল না যেন। তৃতীয় সেটে একটা পর্যায়ে ৮-৭ গেমে এগিয়ে ছিলেন হালেপ। সেখান থেকে ঘুরে দাঁড়িয়ে লরা ডেভিস এগিয়ে যান ০-৪০ পয়েন্টে। তবে ম্যাচ পয়েন্ট বাঁচিয়ে শেষ পর্যন্ত হালেপ জেতেন ১৫-১৩ গেমে। এরপর হাঁফ ছেড়ে বাঁচলেন যেন, ‘আমার জীবনে এত দীর্ঘ ম্যাচ খেলিনি। ডেভিসকে অভিনন্দন।’ ১৮ বারের গ্র্যান্ড স্লামজয়ী ক্রিস এভার্ট অভিনন্দন জানালেন দুজনকেই, ‘ম্যাচটি জিততে পারত দুজনই। এ পর্যন্ত এবারের টুর্নামেন্টের সেরা ম্যাচ এটা।’ দুজন মিলে খেলা ৪৮ গেম অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের যৌথ সর্বোচ্চ রেকর্ড। ১৯৯৬ সালের কোয়ার্টার ফাইনালে চান্দা রুবিন ৬-৪, ২-৬, ১৬-১৪ গেমে হারিয়েছিলেন আরাঞ্চা সানচেস ভিকারিওকে। এএফপি


মন্তব্য