kalerkantho


বার্সেলোনার ভাগ্য কি হবে রিয়ালেরও!

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



বার্সেলোনার ভাগ্য কি হবে রিয়ালেরও!

ঠিক এক বছর আগে, ভালোবাসা দিবসের রাতে, স্বপ্ননগরী প্যারিসে দুঃস্বপ্নের এক রাতই কেটেছিল বার্সেলোনার ফুটবলার, সমর্থকদের। প্যারিস সেন্ত জার্মেইর কাছে কাতালানরা যে হেরে গিয়েছিল ৪-০ গোলে। চ্যাম্পিয়নস লিগের নকআউট পর্বের প্রথম লেগে অমন হারের পর কারো ঘুরে দাঁড়ানোর নজির ছিল না। যদিও ফিরতি লেগে ৬-১ গোলে জিতে অসম্ভবকে ঠিকই সম্ভব করেছিল বার্সেলোনা। তবে সেই অসম্ভবের অন্যতম কারিগর নেইমারকে এবার আকাশছোঁয়া দামে নিয়ে এসেছে পিএসজি। আর আজ, বার্সেলোনার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে সেই নেইমারই পিএসজির বাজির ঘোড়া।

গত বছর প্যারিস, এবার মাদ্রিদ। সেবার নিজের মাঠে বার্সেলোনার মহড়া নেওয়া, এবার চ্যাম্পিয়নস লিগের এক ডজন শিরোপার মালিকদের ডেরায় ঢুকে জিতে বেরিয়ে আসার চ্যালেঞ্জ। লিগ ও কাপ থেকে ছিটকে গেলেও চ্যাম্পিয়নস লিগে এখনো টিকে আছে মাদ্রিদিস্তারা। যারা বলেন, চ্যাম্পিয়নস লিগ তাদের ডিএনএতে! সেই রিয়াল মাদ্রিদ যতই দুঃসময়ে পড়ুক না কেন, চ্যাম্পিয়নস লিগের ম্যাচের আগে ঠিকই গা ঝাড়া দিয়ে উঠেছে! রিয়াল সোসিয়েদাদের সঙ্গে সবশেষ লিগ ম্যাচে হ্যাটট্রিক করে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোও জানান দিয়েছেন তিনি তৈরি, ‘আমি সব সময়ই সর্বোচ্চ পর্যায়ে পারফরম করার জন্য মুখিয়ে থাকি। তবে কখনো কখনো সব কিছু আমাদের পক্ষে থাকে না।’ কাল জানিয়েছেন, এই ম্যাচে জেতাটাই বাঁচিয়ে রাখবে রিয়ালের মৌসুম, ‘রিয়ালের সঙ্গে পিএসজির এই দ্বৈরথটাই আমাদের গোটা মৌসুম বাঁচিয়ে রাখতে পারে। আমরা ভালো একটা দলের বিপক্ষে খেলতে যাচ্ছি, যেখানে অনেক ভালো ভালো ফুটবলার আছে। আমরা তাদের শ্রদ্ধা করি। তবে আমরাও শক্তিশালী দল, এই মৌসুমে সেটা আমরা দেখিয়েছি।’

রিয়ালের আরেক তারকা টোনি ক্রোসও মানছেন, পিএসজির বিপক্ষে ম্যাচটি সহজ হবে না, ‘গত বছর আমরা বায়ার্ন মিউনিখ, অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের মতো দলের সঙ্গে খেলেছি, ফাইনালে জুভেন্টাসকে হারিয়েছি। সেরা দলগুলোকে হারিয়েই জিতেছি। তাই এবারও আশাবাদী।’

চ্যাম্পিয়নস লিগের ম্যাচ খেলতে স্পেনে যাওয়া মানেই তো অবিশ্বাস্য সেই হারের স্মৃতি ফিরে আসা! পিএসজির ফুটবলাররা বেরিয়ে আসতে চাইছেন সেই অভিশপ্ত ৯০ মিনিটের পাকচক্র থেকে। মিডফিল্ডার আদ্রিয়েন রাবিও যেমন জানালেন, ‘এবার আমাদের ধার অনেক বেশি কারণ গত এক বছরে ক্লাবে অনেক ভালো ভালো খেলোয়াড় যোগ দিয়েছে। তবে এসব ম্যাচের একটা মানসিক দিকও থাকে। তবে এবার আমরা প্রস্তুত থাকব। গতবার মানসিক কারণেই আমরা হেরেছিলাম, এবার হারব না।’ আনহেল দি মারিয়াও জোর গলায় বলছেন, ‘এবার আমরা আগের চেয়ে শক্তিশালী।’

একটা সময় রিয়ালকে বলা হতো গ্যালাকতিকোস। এখন পিএসজিও নক্ষত্রলোকের চেয়ে কম নয়! তবে সেটা কতটা দেখনদারি আর কতটা কাজের, সেটা বোঝা যাবে আজকের ম্যাচের পর। চ্যাম্পিয়নদের ডেরায় ঢুকে হারিয়ে আসাটা তো আর যেই সেই ব্যাপার নয়! এএফপি, স্কাই

 


মন্তব্য