kalerkantho


মোনাকোকে বিধ্বস্ত করে লিগ পিএসজির

১৭ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:০০



মোনাকোকে বিধ্বস্ত করে লিগ পিএসজির

হোক না ব্যবধানটা ১৭ পয়েন্টের, তবু তো লিগ টেবিলের শীর্ষ দুই দলের দ্বৈরথ। ফরাসি লিগের শিরোপা ছিল মোনাকোর কাছেই। তারা যে নেইমারবিহীন প্যারিস সেন্ত জার্মেইর কাছে এমন গো-হারা হারবে, সেটা কে-ই বা ভেবেছিল! পার্ক দ্যু প্রিন্সেসে রীতিমতো ঝড় বয়ে গেছে লিওনার্দো জার্দিমের দলের ওপর দিয়ে। পিএসজি তাদের হারিয়েছে ৭-১ গোলের বিশাল ব্যবধানে। তাতেই নিশ্চিত হয়ে গেছে পিএসজির লিগ শিরোপা। অমন হারের পর মোনাকো কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তারা সমর্থকদের প্যারিসে যাওয়ার খরচা ফেরত দেবে।

ম্যাচের ১৪ থেকে ২০—এই ৬ মিনিটেই ৩ গোল দিয়ে রীতিমতো মোনাকোকে দর্শকের আসনে বসিয়ে দেন পিএসজির ফুটবলাররা। শুরুর গোলটা আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডার জিওভানি লো চেলসোর, দানি আলভেসের পাসে বাঁ পায়ের শটে। মিনিট দুই পর এদিনসন কাভানির হেডে ব্যবধান হয় ২-০। ২০তম মিনিটে কাভানির পাসে আনহেল দি মারিয়ার গোল। এখানেই শেষ নয়, ২৭তম মিনিটে লো চেলসোর হেড থেকে করা গোলে স্কোরলাইন হয় ৪-০! ৩৮তম মিনিটে মোনাকোর হয়ে ব্যবধান কমান রনি লোপেস। অতটুকুই সান্ত্ব্তনা। দ্বিতীয়ার্ধে আরেকবার স্কোরশিটে নাম তোলেন দি মারিয়া, শেষবেলায় ইউলিয়ান ড্রাক্সলার করেন আরেক গোল। সঙ্গে যোগ হয়েছে ৭৬ মিনিটে করা রাদামেল ফালকাওয়ের আত্মঘাতী গোলও। সব মিলিয়ে ৭-১ গোলের বড় ব্যবধানে জিতেই শিরোপার উৎসবে মাতে প্যারিসবাসী। ৩৩ ম্যাচে ৮৭ পয়েন্ট নিয়ে সবার ধরাছোঁয়ার বাইরে চলে গেছে পিএসজি, ২০১২-১৩ মৌসুম থেকে এখন পর্যন্ত ৬ মৌসুমে তারাই পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন। গেল মৌসুমে মোনাকোর কাছে মুকুট হারালেও এবার ঠিকই শিরোপা পুনরুদ্ধার করল তারা। এই সাফল্যে কোচ উনাই এমেরি বলছেন, ‘অন্য অনেক দলই আমাদের চেয়ে বেশি শিরোপা জিতেছে, তবে আমাদেরও একটা ধারা তৈরি করতে হবে। ফ্রান্সে এক নম্বর দল হওয়ার জন্য জমাট একটা দল আছে আমাদের হাতে, ধৈর্য ও কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে আমাদের অন্য জায়গাতেও সেরা হতে হবে।’ টানা পঞ্চমবারের মতো লিগ কাপটাও জিতে নেওয়ায় ‘ডমেস্টিক ডাবল’ও পূর্ণ হয়েছে পিএসজির; চ্যাম্পিয়নস লিগে রিয়াল মাদ্রিদের কাছে হেরে বাদ পড়ায় ভেঙে গেছে ট্রেবলের স্বপ্ন।

মালাগার বিপক্ষে ২-১ গোলে জিতেছে রিয়াল মাদ্রিদ। ইসকোর জাদুকরী ফ্রি কিক থেকে করা গোলের সঙ্গে ক্যাসেমিরোকে গোলের উৎস তৈরি করে দিয়ে ম্যাচটি নিজের করে নিয়েছেন তরুণ এই স্প্যানিশ অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার। আর্জেন্টিনাকে প্রীতি ম্যাচে হারানোর ম্যাচেও দারুণ পারফরম করা ইসকো কোচের কাছে চেয়েছিলেন একাদশে নিয়মিত জায়গা আর নির্ভার হয়ে খেলার সুযোগ। রিয়াল ঘেঁষা ক্রীড়া দৈনিক মার্কায় লেখা হয়েছে, ‘স্পেনের ইসকোর স্বাদ পাচ্ছে রিয়াল’, ‘ইসকো, ওদের ক্ষমা করে দাও, ওরা জানে না যে ওরা ভুল করছে।’ ইঙ্গিতটা স্পষ্টই জিনেদিন জিদানের দিকে। গত মাসে তিনিই বলেছিলেন, ‘ইসকোর প্রতি আমি অন্যায় করছি না। এখানে হয়তো সে একই ভূমিকায় (জাতীয় দল) নেই, তবে সেও দলের গুরুত্বপূর্ণ একজন খেলোয়াড়।’ তবে ইসকো যে গুরুত্বপূর্ণ একজনের চেয়ে বেশি কিছু হয়ে উঠছেন, তাঁর খেলায় সেই ছাপ স্পষ্ট। শেষ সময়ে মালাগার হয়ে ব্যবধান কমিয়েছেন ডিয়েগো রোলান, তাতে অবশ্য রিয়ালের জয় আটকায়নি। লিগ টেবিলে তিনে থাকা রিয়ালের পরের ম্যাচ অ্যাথলেতিক বিলবাওয়ের সঙ্গে। ওদিকে অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদও ৩-০ গোলে লেভান্তেকে হারানোয় তারাই এখন লিগ রানার্স-আপের জায়গায়, রিয়াল ৪ পয়েন্ট পিছিয়ে তিনে।

রিয়ালের সঙ্গে চ্যাম্পিয়নস লিগে দারুণ কামব্যাক করেও শেষ পর্যন্ত পেনাল্টিতে গোল খেয়ে ছিটকে যাওয়া জুভেন্টাস সিরি ‘এ’তে সাম্পদোরিয়াকে হারিয়েছে ৩-০ গোলে। তাতে করে ৩২ ম্যাচে ৮৪ পয়েন্ট নিয়ে তারাই আছে শীর্ষে। গোল করেছেন মান্দজুকিচ, হুয়েভাদেস আর স্যামি খেদিরা। গোলশূন্য ড্র করেছে লািসও আর বার্সেলোনাকে চ্যাম্পিয়নস লিগ থেকে বিদায় করে দেওয়া রোমা। জুভেন্টাসের খানিকটা সুবিধা করে দিয়েছে এসি মিলান, ঘরের মাঠে তারা গোলশূন্য ড্রতে রুখে দিয়েছে লিগ টেবিলের দুইয়ে থাকা নাপোলিকে। তাতে করে শীর্ষ দুইয়ের পয়েন্টের ব্যবধানটা বেড়ে হয়েছে ৬। স্কাই, এএফপি


মন্তব্য