kalerkantho


পূরণ করতে হবে জাবিরের অভাব

২১ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:০০



পূরণ করতে হবে জাবিরের অভাব

ক্রীড়া প্রতিবেদক : ঢাকায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক ভলিবল দিয়ে তারকাখ্যাতি পেয়েছেন সাঈদ আল জাবির। ভলিবলের নতুন যুগের মুখ হয়ে উঠেছেন তিনি। তবে মিরপুর ইনডোরে আজ থেকে শুরু হতে যাওয়া দ্বিতীয় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক ভলিবলে দর্শক হয়ে থাকবে ২০১৬-র শিরোপাজয়ী এ অধিনায়ক। এই টুর্নামেন্টের প্রস্তুতিতেই ইরান গিয়ে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন, ঢাকায় ফিরে আর ক্যাম্পেই যোগ দেওয়া হয়নি তাঁর।

নতুন অধিনায়কের দায়িত্ব কাঁধে তুলে নিয়েছেন গত আসরের সেরা খেলোয়াড় হরশিত বিশ্বাস। জাবির অনায়াসেই সেই পুরস্কার জিততে পারতেন, তিনটি ম্যাচেই তিনি সেরা খেলোয়াড় হয়েছিলেন। তবু তরুণ হরশিতকে টুর্নামেন্ট সেরা বেছে নেওয়ায় তাঁরও যেন প্রচ্ছন্ন সায় ছিল। দলের এবারের শক্তিমত্তা নিয়েও যেমন নির্ভার তিনি, ‘ইরানে পুরো দল খুব ভালো প্রস্তুতি নিয়েছে। দলে সিনিয়র-জুনিয়দের দারুণ একটা মিশ্রণ আছে। সবাই-ই মাঠে নিজেদের সেরাটা দিতে একরকম মুখিয়ে।’ তবে টিম ম্যানেজমেন্টের কাছে জাবিরের বিকল্প কে হবেন, তা বেশ গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু হয়ে উঠেছিল। কারণ জাবির মূলত ‘পয়েন্ট গেটার’। সেই ভূমিকায় তেমন তুখোড় একজনকে না পাওয়া মানেই দলের শক্তি অনেকটাই কমে যাওয়া। তবে এখনো পর্যন্ত সেই আশঙ্কা করছেন না কেউ, কারণ— কায়সার হামিদ। সেই ২০০৯ সালে তাঁর জাতীয় দলে অভিষেক। দুটি এসএ গেমস খেলেছেন, ছিলেন ঢাকায় প্রথম সেন্ট্রাল এশিয়ান ভলিবলের দলেও। কিন্তু দুর্ভাগ্য তাঁর গতবার। বাংলাদেশের প্রথম শিরোপা জয়ের সঙ্গী হতে পারেননি। এবারের জাবিরের মতো চোটে পড়ে তিনি সেবার দর্শকসারিতে। এবার সেই কায়সারই হয়ে উঠেছেন আবার বড় ভরসা, গত আসরের নায়কের বিকল্প ভাবতে তাঁকে দ্বিধা করছেন না কেউই। অধিনায়ক হরশিত তো বলেছেন, ‘কায়সারের ফর্ম এই মুহূর্তে গতবারের জাবিরের চেয়ে এগিয়ে।’

আজ নেপালের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচেই তার একটা ছবি পাওয়া যাবে। গতবার শিরোপা জয়ের পথে নেপালকে ৩-০তে হারালেও গত বছর তাদের মাঠে টানা দুটি প্রীতি ম্যাচ হেরে এসেছে বাংলাদেশ। এর বাইরে গত ১৬ মাসে বাংলাদেশ আর কোনো ম্যাচ না খেললেও ব্যস্ত সময় পার করেছে নেপালিরা। এবারের আসরে তাদেরও শিরোপা জয়ের লক্ষ্য। প্রথম ম্যাচ থেকেই পরীক্ষা শুরু তাই স্বাগতিকদের।


মন্তব্য