kalerkantho


বিশ্বকাপ কর্নার

২১ জুন, ২০১৮ ০০:০০



বিশ্বকাপ কর্নার

উদ্‌যাপন ফিফা র‌্যাংকিংয়ের আট নম্বর দল পোল্যান্ডকে ২-১ গোলে হারিয়ে চমকে দিয়েছে সেনেগাল। ম্যাচ শেষে সে উদ্‌যাপন ই করছেন খেলোয়াড়রা।

নিয়াং মানেই বিতর্ক!

পোল্যান্ডকে হারানোর নায়ক এমবায়ে নিয়াং। ২-১ গোলে জেতা ম্যাচের প্রথম গোলে রেখেছেন গুরুত্বপূর্ণ অবদান। আর দ্বিতীয়টি করেছেন নিজে, যাতে মিশে আছে বিতর্ক। চোট পেয়ে মাঠের বাইরে থাকা এই খেলোয়াড় নিয়ম মেনে নেমেছিলেন কি না, রেফারিকে প্রশ্ন তুলেছিলেন পোলিশ খেলোয়াড়রাও। দেশের হয়ে অষ্টম ম্যাচে প্রথম গোল করা নিয়াং কিন্তু বিতর্কিত ক্যারিয়ারজুড়েই।

নিয়াংয়ের জন্ম ফ্রান্সে। ফরাসি বয়সভিত্তিক দলগুলোতে ছিলেন নিয়মিত। ২০০৯ সালে অনূর্ধ্ব-১৬, ২০১১-তে অনূর্ধ্ব-১৭ আর ২০১২ সালে ছিলেন অনূর্ধ্ব-২১ দলে। এরপর অপেক্ষায় ছিলেন ফ্রান্সের হয়ে ইউরো ও বিশ্বকাপ খেলার। দিদিয়ের দেশম সুযোগ না দেওয়ায় মা-বাবার দেশ সেনেগালের হয়ে খেলার সিদ্ধান্ত নেন গত বছর। এ নিয়ে বিতর্কের ঝড় বয়ে যায় ফ্রান্সে।

২০১২ সালে নাইটক্লাবে যাওয়ার অপরাধে এক বছর ফ্রান্সের যেকোনো দল থেকে নিষিদ্ধ করা হয়েছিল নিয়াংকে। সে বছরই লাইসেন্স ছাড়া গাড়ি চালিয়ে গ্রেপ্তার হতে হয়েছিল পুলিশের হাতে। ২০১৪ সালে মপেঁলিয়েরের রাস্তায় তাঁর ফেরারি ধাক্কা দেয় অন্য কয়েকটি গাড়িকে। জেল হয় ১৮ মাসের। তবে সামাজিক সেবামূলক কাজ করায় যেতে হয়নি জেলে। কাকতালীয়ভাবে বিতর্কিত ২৩ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ডের করা বিশ্বকাপের প্রথম গোলটিতেও মিশে থাকল বিতর্ক। এপি

 

মেসির ফেসবুকে বাংলাদেশ

আর্জেন্টিনার ফুটবল নিয়ে বাংলাদেশের মানুষের উন্মাদনা ভালোই জানা মেসির। বাংলাদেশে একটি প্রীতি ম্যাচ খেলতে এসে খুব কাছ থেকে দেখেছেন তাঁকেও কতটা ভালোবাসে এ দেশের মানুষ। নিজের ফেসবুকে সেটাই তুলে ধরেছেন পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী এই কিংবদন্তি। বিশ্বজুড়ে ভক্তদের উন্মাদনা নিয়ে এক মিনিট পাঁচ সেকেন্ডের একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন তিনি। সেখানে বাংলাদেশ জায়গা পেয়েছে কয়েকবার। সবুজ মাঠে আর্জেন্টিনার বিশাল পতাকা নিয়ে বসা একদল সমর্থক আর লাল-সবুজ পতাকা দিয়ে বোঝানো হয়েছে এটা বাংলাদেশের। আছে ছাদে পতাকা ওড়ানো আর শহরের রাস্তায় মিছিলের ভিডিও।

মেসির শেয়ার করা ভিডিওর ক্যাপশনে লেখা, ‘রাশিয়া বিশ্বকাপে মেসির আসল ভক্তটিকে খুঁজে বের করুন আর আপনার সেরাটিকে বাছাই করুন।’ মেসির ফেসবুক পেজে সেরা বাছাই করতে ভোট দিতে বলা হয়েছে ১৮ থেকে ২৫ জুনের মধ্যে। এর জয়ী পাবেন মেসির স্বাক্ষর করা বিশ্বকাপ বল। এএফপি

 

‘আত্মঘাতী’ বিশ্বকাপ

প্রথম রাউন্ড শেষ বিশ্বকাপের। বড় দলগুলোর বড়াই কমেছে এই রাউন্ডে। হেরে গেছে জার্মানি। ড্র করেছে ব্রাজিল, আর্জেন্টিনা। হয়েছে দৃষ্টিনন্দন কয়েকটি গোল। মাঠের খেলার মতো আলোচনা ভিএআর নিয়েও। সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে ড্রর পর এই প্রযুক্তির ব্যবহার নিয়ে ফিফার কাছে আবেদন জানিয়েছে ব্রাজিল। আলোচনায় কিন্তু আত্মঘাতী গোলও। গত পরশু পর্যন্ত খেলোয়াড়রা নিজেদের জালে বল পাঠিয়েছেন পাঁচবার!

বিশ্বকাপ ইতিহাসে এটা দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। ১৯৯৮ বিশ্বকাপে ছয়টি আত্মঘাতী গোল এখনো এই রেকর্ডের চূড়ায়। তবে যে হারে আত্মঘাতী গোল হচ্ছে, তাতে রাশিয়া বিশ্বকাপের শীর্ষে ওঠাটাকে মনে হচ্ছে সময়ের ব্যাপার মাত্র! গত পরশু এক দিনেই হয়েছে দুটি আত্মঘাতী গোল। একটি করেছেন পোল্যান্ডের থিয়াগো কোইনেকে আরেকটি মিসরের আহমেদ ফাতে। গোল ডটকম

 

 

 



মন্তব্য